BirBangali24

Hot

Post Top Ad

Post Top Ad

Monday, August 14, 2017

17+ Free PSD Business Card Mockups With Smart Objects

August 14, 2017 0
Today we are showcasing some best business card mockup psd designs collection to help you present your latest works. This is a neat collection of business card mock-ups hand picked by a group of designers, hence we can guarantee the caliber of each item in this tilt.


Designers know how important work presented is, no matter whether it is a client presentation or adding your recent work in a portfolio. Submitting your work in a proper and more appealing way is also a creative component. A good presentation helps to interpret the intended purpose of your design so investing more or less time to demonstrate your design is invariably in effect.


Equally, we have talked about many times before, business cards are one of the vital characters of any business, perhaps it is the first item you need to take when you do branding. A good business card reflects your identity and personality to your client. If you are a designer, when you design a business card for your client you really need to take advantage of these business card mock-ups in order to present your work.

All these mock-ups are in PSD format so it is very comfortable to cut these files as per your demands. You can use these mocks for personal as well as commercial usage.

01.

Read More

23+ Free Poster Mockup PSD Templates for Designers

August 14, 2017 0
Creating an artistic poster is one of the most fun projects a designer can work on. It’s especially satisfying when you have your hard work professionally printed into a physical poster, but this can be quite costly. You don’t have to spend all that money to see how your design would look freshly printed and mounted though, there’s a range of PSD mockup templates that simulate your design being presented as a framed print, wrapped canvas or even an outdoor billboard. In this post I round up 20 free Photoshop mockup templates that I’ve personally tried and tested, all of them have a special layer or Smart Object to place your own artwork to have it automatically mocked up.

01.

02.


Read More

Thursday, July 14, 2016

কেনো অভিজ্ঞ ফ্রিলান্সাররা নতুনদের সাহায্য করতে উৎসাহবোধ করে না?

July 14, 2016 0

অনেকেই আশেপাশের পরিচিত ফ্রিল্যান্সারদের সফলতা দেখে ফ্রিল্যান্সিং এর প্রতি আগ্রহী হয়ে ওঠে। এবং তার কাছ থেকে এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে চায় বা শিখতে চায়। কিন্তু ব্যাপার হচ্ছে এ ক্ষেত্রে বেশিরভাগ সফল ফ্রিল্যান্সার রা সাহায্য করতে উৎসাহবোধ করে না? এতে করে অনেকের মনেই ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এমনকি সম্পর্কেও টানা পড়ে।

কিন্তু তাদের এই সাহায্য করতে উৎসাহী না হওয়ার পেছনে আছে হাজারো কারন। যা আমরা কেউ বুঝতে পারি না বা বুঝতে চাই না।


তাই আসুন জানি মূলত কেনো অভিজ্ঞ ফ্রিলান্সাররা নতুনদের সাহায্য করতে উৎসাহবোধ করে না?

  • একজন সফল ফ্রিলান্সারের জীবনী যদি জানতেন, তবে আপনি নিজেই প্রত্যেককে “লিজেন্ড” উপাধিতে ভূষিত করতেন। বিশ্বাস করুন, তারা শতবার ব্যর্থ হয়েছে। কাউকে সে কথা বলেনি। রাতের পর রাত পার করেছে শুধু তার স্কিল ডেভেলপমেন্ট করার জন্য। আর পক্ষান্তরে যখন একজন ছোটভাই তার কাছে এসে আবদার করে, “ভাইয়া, দয়া করে আমাকে সহজে ইনকাম করার কোন উপায় দেখিয়ে দিন ” । তখন বড় ভাইয়াটি লজ্জায় লাল হয়ে যাওয়ার মতো বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে। বড় ভাইটি ভালো করেই জানে যে, লং টার্ম ইনকাম করার জন্য শর্টকাট কোন উপায় নাই। ফ্রিলান্সিং কোন সরকারী চাকরি নয় যে, মামা, খালু বা বড় ভাই থাকলেই তার রেফারেলে চাকরি পেয়ে গেলেন, আর সাড়া জীবন ঠ্যাং এর উপর ঠ্যাং তুলে মাসে মাসে বেতন নিবেন। নো ব্রাদার, ইট ইজ নট পসিবল। আপনার বড় ভাই আপনাকে কোনরকম বুঝ দিয়ে গা ঢাকা দিবে।
  • প্রত্যেকটা সফল ফ্রিলান্সার তার নিজ আগ্রহে সফল হয়েছে। কম্পিউটার, ইংরেজী দক্ষতা ,ইন্টারনেট থাকুক বা না থাকুক। তার আগ্রহের কাছে এইসব কোন ব্যাপার নাহ। নিজের আগ্রহ এতো বড় একটা ব্যাপার যে, এটা ছাড়া আপনার শরীরে কম্পিউটার আঠা দিয়ে লাগিয়ে দিলেও আপনি জীবনে অনলাইন প্রফেশনাল হতে পারবেন না। যখন আপনি আর্থিকভাবে সমস্যায় পড়ে এক্সপার্ট কোন এক বড় ভাইয়ের কাছে যাবেন খালি কাড়ি কাড়ি টাকা ইনকাম করার জন্য, তখন আপনার বড় ভাই খুব সহজেই বুঝে নেবে যে, আপনার এখানে শিখার ইচ্ছা নাই। শুধু টাকা ইনকামের ধান্ধা। এক্ষেত্রেও সে আপনাকে সাহায্য করতে চাইবে না।
  • প্রত্যেকটা অনলাইন প্রফেশনালই খুব ব্যস্ত থাকে। তাদের হাতে আহামরি কোন সময় থাকে না। আপনারা ফেসবুকে তাদের ঘুরাঘুরির যে ছবি দেখে থাকেন, তা হলো তাদের অবসর সময়ে ঘুরতে যাওয়ার ছবি। হয়তো নতুন হিসাবে আপনি ভেবে থাকবেন যে, ইশ! কত্ত স্বাধীনতা অনলাইন কাজের মধ্যে। নাহ! ব্যাপারটি মোটেও এতো সোজা নয়। সে হয়তো কোন রকম বাসায় ফিরে ছবি টি আপলোড দিয়েই কাজে নেমে পড়েছে। সেটা আমরা কেউ ভাবতে চাই না। যাইহোক, আপনি যখন কোন বড় ভাইয়ের কাছে সাহায্য চাইবেন, সে আপনাকে সাহায্য করতে চাইলেও পারবে না, কারন তার ক্লায়েন্ট তাকে মুলি বাঁশ দিচ্ছে তার প্রজেক্ট ডেলিভারি দেওয়ার জন্য। এমন অবস্থায় আপনি তাকে ভাবওয়ালা বলতে পারবেন। কিন্তু তার প্যারাটা আপনি তখন ই বুঝবেন যখন একদিন আপনি এক্সপার্ট হবেন। আপনি হয়তো সেটা না ভেবেই তাকে কষ্ঠ দিয়ে কিছু বললেন বা গালাগালি দিবেন ম্যাসেজে। ব্যাস। তার মনটা ভেঙ্গে গেলো। আপনার সাথে আরো ১০ জন নতুনরা তাদের সাহায্য থেকে বঞ্চিত হলো।
  • যখন কোন বড় ভাই আমাদের কিছু টিপস দিলো, তখন হুমড়ি খেয়ে তাকে ম্যাসেজ দেওয়া শুরু হলো। ব্যাস। একটা ব্যস্ত মানুষ যদি প্রতিদিন ৫০ টা ম্যাসেজের রিপ্লাই দেয়, তবে তার কাজ টা কে করে দিবে শুনি? ব্যক্তিগতভাবে সাহায্য কামনা করাটা বোকামী ছাড়া আর কিছুই না। মনে রাখবেন, টিপস শেয়ার করে কেউ কোটিপতি হয়ে যায় না। তাকে তার নিয়মিত কাজ চালিয়ে যেতে হয়। তাই তাকে ম্যাসেজ দিয়ে তার কাছ থেকে রিপ্লাই আশা করাটা সব সময়ের জন্য যথার্থ নাও হতে পারে। কারন, বড় ভাই ভালো করেই জানে যে, যে শিখার সে ২০ ভাগ ধারনা পেয়ে গেলে বাকী ৮০ ভাগ নিজে নিজে খুজে বের করে নিবে। আর যে ব্যক্তি বাকি ৮০ ভাগ খুজে নিতে পারবে না, মূলত তার অনলাইনে আয় করার যোগ্যতাই হয় নাই। আর আমরা এমন স্বভাবের যে, আমরা চাই বড় ভাইরা আমাদের ঘন্টার পর ঘন্টা আমাদের সবকিছু সমাধান করে দিবে। না দিলেই ম্যাসেজ আমরা বংশ পরিচয়ের কথা ভুলে গিয়ে গালাগালি করি। বড় ভাইয়ের মন ভেঙ্গে যায় আর ভবিষ্যতে কোন সাহায্য পাই না।
  • হয়তো অনেকেই সাহায্য করতে চায় কিন্তু যখন দেখে যে, সাহায্য করা মাত্র আমাদের বাঙ্গালী ভাইয়ারা বীরের বেশে স্প্যামিং করছে তখন আর কি? সোজা চুপ হয়ে যায়। কারন আমার ব্যক্তিগত রিসার্চ বলে যে, অন্তত ২০% মানুষ শুধু কপি পেষ্ট বা স্প্যামিং করে ইনকাম করার ধান্ধা করে। তারা মার্কেটে বাংলাদেশের মান বজায় রাখতে কৌশলে নিজেকে লুকিয়ে রাখে।
  • একজন হেল্পফুল মাইন্ডের মানুষ যে কিনা আবার সত্যিই নতুনদের সাহায্য করতে চায় তাকে আবার আমরা সময়ে, অসময়ে ম্যাসেজ দিয়ে জানতে চাই, “ভাইয়া কেমন আছেন? / আসসালামুয়ালাইকুম ভাইয়া / ভাইয়া বাসার সবাই ভালো? / ভাইয়া, আপনার শরীরটা ভালো? / ভাইয়া আপনার দিনকাল কেমন যাচ্ছে ” আহা……… কত ফরমালিটি। কিন্তু সত্যি কথাটা কি জানেন, অনলাইন প্রফেশনালদের কাছে এই সকল বিষয়গুলি খুব বিরক্তির কারন হয়ে দাড়ায়। আপনি একজন বড় ভাইকে সোজা ম্যাসেজ দিয়ে আপনার সমস্যার কথা বলবেন। এতো ফরমালিটির দরকার নাই। কারন যদি আপনি ব্যক্তিগত ভাবে পরিচিত না হোন, তবে কুশলাদি বিনিময় করা অনেক ক্ষেত্রে বিরক্তির কারন হয়ে দাড়ায়। আর আপনার বড় ভাই ভালো করেই যানে যে, আপনার অনলাইনের ব্যাপারে সাহায্য দরকার ও আপনি তাকে ফেসবুকে অনেক দিন ধরে ফলো করতেছেন। সো? সোজা প্রশ্ন করুন, উত্তর পাবেন। তবে হ্য। আপনি ‍যদি আবার সালামের সাথে সাথে আপনার প্রশ্নটাও জুড়ে দেন তবে বিরক্ত হবার কোন কারন নাই। আপনি আপনার উত্তর পাবেন। শুধু সালাম দিয়ে বসে থাকলে অনেক ক্ষেত্রে আপনি ‍কোন রিপ্লাই না পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।
  • অনেক ক্ষেত্রে আমাদের সাহায্য চাওয়ার ধরনটা এইরকম যে, “ভাইয়া, আমি অনলাইনে আয় করতে চাই, প্লিজ আমাকে সাহায্য করুন”। অনলাইনে এতো বেশি পরিমান রিসোর্স থাকার পরেও কাউকে এমন প্রশ্ন করলে মেজাজ বিগড়ে যাওয়ার মতো অবস্থা হয়। আপনার কি মনে হয় এখন আপনার বড় ভাই আপনাকে সবকিছু বিস্তারিত বলে দেবে? কিংবা আপনাকে হাতে ধরে শিখাবে? এতো টাইম কোন ফ্রিলান্সারের হবে না। এই প্রশ্নটা দেখলেই আমার মন মেজাজ খারাপ হয়ে যায়। একদম সোজা সাপ্টা নির্দিষ্ট প্রশ্ন করুন। আপনার বড় ভাই যখন বুঝতে পারবে যে, আপনি রিসার্চ করেছেন এবং কোথাও গিয়ে আটকে গিয়েছেন, দেখবেন ভালো একটা রিপ্লাই পেয়েছেন। সাথে একটা স্মাইলিও পেতে পারেন। পরিশ্রমী ফ্রেশারদের প্রত্যেকটা এক্সপার্টই সাহায্য করতে ভালোবাসে।
  • “ভাই আপনার ফোন নাম্বারটা একটু দিবেন প্লিজ” এই প্রশ্নটা আমি খুব বেশি বিরক্তের চোখে দেখি। খাওয়ার সময়টা পাইনা। সেখানে কারো সাথে ফোনে কথা বলার মন মানুষিকতা ক্যামনে হবে? ফোনে কথা বলে ফ্রিলান্সার হওয়া যায় না রে পাগলা। তবে পূর্ব পরিচিত হলে আলাদা ব্যাপার। কোন বড় ভাইয়ার কাছে ফোন নাম্বার চাইলে যথার্থ কারন দেখিয়ে ফোন নাম্বার চাইবেন। এতে আপনার বড় ভাই বুঝে নেবে যে, আপনার সাথে কথা বললে আপনার কোন উপকার হবে। উদ্দেশ্যবিহীন ভাবে ফোন নাম্বার চাইলে ম্যাসেজ সিন ই করবে না।
  • আমাদের মধ্যে খায়িয়ে দেওয়ার একটা ব্যাপার থাকে। অর্থাৎ, কেউ কোন টিওটোরিয়াল বা টিপস দিলে কেনো সে একেবারে আপনাকে শরবত বানিয়ে খায়িয়ে দিলো না, তাই তাকে গালাগালি করতে আমাদের গায়ে লাগে না। অথবা আপনি এমন সকল প্রশ্ন করবেন যে, সে প্রশ্ন করার কোন প্রয়োজন ই আপনার নাই। সামান্যতম রিসার্চ করতে না পারলে আপনার অনলাইনে কাজ করার যোগ্যতাই হয় নি। দয়া করে নিরাপদ দূরত্বে অবস্থান করুন।
  • কারো ভালো কাজের যথাযথ মূল্যায়ন না করে আমরা সমালোচনাই বেশি করি। এতে এক্সপার্টদের মন ভেঙ্গে যায়। যখন তাদের কাজগুলিকে প্রসংসা না করে বেশি সমালোচনা করা হবে তখন তাদের মন ভেঙ্গে যাওয়াটাই স্বাভাবিক। আর তখন দেখবেন যে, বড় ভাইরা খালি ফেসবুকে ফানি ভিডিও পোষ্ট করবে আর বাংলিশ কমেন্ট করে মজা নিবে। কারন তারা আজাইরা পরিশ্রম করতে চায় না। আচ্ছা বলুন তো, মেন্টর এর কাছ থেকে ইথিক্যাল মার্কেটিং শিখে যদি কেউ ইউটিউবে চটি গল্প পোষ্ট করবে তাহলে তার দায়ভার কেন মেন্টর নিবে? জুকারবার্গ ফেসবুক লাইভ জ্যকলিন আর রেশমি আলুর জন্য বানায় নাই। ভালো উদ্দেশ্যে বানিয়েছে। নিশ্চিই বুঝতে পেরেছেন আমি কি বলতে চাইছি।

সব কথার মূল কথা হলো, সহজে ইনকাম করার চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন। রিসার্চ করতে শিখুন। বর্তমানে অনেক রিসোর্স রয়েছে যা আমাদের সময় ছিলো না। আমার মতে কোন এক্সপার্ট বড় ভাইয়ের দরকার নাই। তাই কোন বড় ভাইকে একদম সাধারন প্রশ্ন না করে আগে রিসার্চ করুন। আপনার আগ্রহ থাকলে আপনি যে কোন সমস্যার সমাধান করতে পারবেন। তার পরেও যদি কোথাও আটকে যান তবে স্পেসিফিক কারন সহ এক্সপার্টদের প্রশ্ন করুন। আশাকরি ভালো সমাধান পাবেন। আর একটু কৌশলী হওন। মনে রাখবেন, এক্সপার্টরা অনেক ব্যস্ত থাকে। আপনার ফ্রিলান্সিং যাত্রা শুভ হোক।


Read More

জেনে নিন ফ্রিল্যান্সারদের দৈনন্দিন লাইফস্টাইল

July 14, 2016 1
অনেকের মনেই প্রশ্ন থাকে, ফ্রিল্যান্সারদের দিনগুলো কেমন কাটে। তারা মূলত কি করে ? তাদের ডেইলি লাইফস্টাইল কেমন ? তাদের এ পেশার সুবিধা কি আর অসুবিধাই বা কি ?

এই সমস্ত প্রশ্নের উত্তরগুলো অনেকটা এরকমঃ

  • ফ্রীল্যান্সাররা সাধারণত সকালের নাস্তা করে না ( ঘুম থেকে উঠে দুপুর ১ টায় ) ... তাই বাপের খাওয়া খরচ কমে যায় ।
  • ফ্রীল্যান্সার রা রাত জেগে কাজ করে তাই বাসায় চোর আসার সম্ভাবনা নাই।
  • কোন কারনে ডলারের দাম জানতে হলে , একজন ফ্রীল্যান্সার কে জিজ্ঞাসা করুন , পেয়ে যাবেন।
  • আপনার মেয়েকে বিয়ে দেয়ার জন্য যদি একজন চরিত্রবান ছেলে প্রয়োজন হয় তবে অবশ্যই একজন ফ্রীল্যান্সার ছেলে খুজে বের করুন ( ব্রাউসিং হিস্টোরি ছাড়া , চরিত্র একবারে ফক- ফকা ) ।
  • ফ্রীল্যান্সার দের সাধারণত গার্লফ্রেন্ড কিংবা বয় ফ্রেন্ড থাকেনা। তাই বেশি ঝামেলাও নাই।
  • ফ্রীল্যান্সার রা সাধারণত রাস্তা ঘাটে মেয়েদের দিকে তাকায় না ... তাই চোখ ভাল থাকে।
  • ফ্রীল্যান্সাররা নিজের টাকায় চলে, তাই বাবা মার টেনশন কম।
  • বেশিরভাগ সফল ফ্রীল্যান্সারদের ই DSLR থাকে , তাই অনেক আপু ই এদের ভাও দেয়...( বিশ্বাস না হইলে আসে পাশে দেখেন বেশিরভাগ সফল ফ্রীল্যান্সারদের ই DSLR আছে ) ।
  • ফ্রীল্যান্সাররা প্রায় সময় বাসায় ই থাকেন , তাই প্রতিবশীদের কাছে ভাল একটা ইমেজ তৈরি হয়।
  • ছেলে ফ্রীল্যান্সাররা সাধারণত চুল কাটা, সেভ করার টাইম পান না তাই সেই খরচ টাও বেচে যায়।
  • রোজার দিনে আপনার বাসায় এলারম ঘড়ির প্রয়োজন নাই যদি আপনার বাসায় একজন ফ্রীল্যান্সার থাকে।
  • এক নম্বর পয়েন্টে উল্লেখিত খরচ টা ফ্রীল্যান্সাররা অতিরিক্ত কারেন্ট বিল তুলে উসুল করে নেয়।

Read More

কাদের জন্যে ফ্রিল্যান্সিং পেশা ?

July 14, 2016 1


বর্তমান যুগে অনেকেই বেকারত্ব দূর করতে ঝুকছেন ফ্রিল্যান্সিং এর দিকে। কিন্তু সব মানুষ যেমন এক রকম হয় না ঠিক তেমনি ফ্রিল্যান্সিং পেশাটাও সবার জন্যে না। তাই আসুন জেনে নিই মুলত কাদের জন্যে এই মুক্ত পেশা।

কাদের জন্য এই মুক্ত-পেশা?
  • যাদের অতিরিক্ত লোভ নেই।
  • যারা কাজ শেখার ধৈর্য রাখে।
  • যারা আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কাজ করার মত কমিউনিকেশন জানে।
  • যারা শর্টকাটে টাকা আয় করতে চায় না।
  • যাদের জীবনে কিছু করার প্রবল ইচ্ছে আছে।
  • যারা সৎ পথে জীবিকা নির্বাহ করতে চায়।
  • যাদের শেখার প্রবণতা আছে।

যারা এ পথে না আসলে ভাল করবেনঃ
  • যারা কাজের চেয়ে টাকাকে মূল্যায়ন করেন।
  • যারা সহজে আয়ের পথ খুঁজছেন।
  • যারা চাকরির বা অন্য পেশার পাশাপাশি সাইড ইনকাম হিসেবে ফ্রিল্যান্সিং কে ভাবছেন।
  • যারা মনে করছেন শেখা শুরুর ১৫দিন – ১ মাসের মধ্যেই কারি কারি -টাকা আয় করবেন।
  • যারা ফ্রিল্যান্সিং কে খুব সহজ ভাবেন।
  • যারা ফ্রিল্যান্সিং ট্রেইনিং সেন্টারের চটকদার বিজ্ঞাপন ‘ঘরে বসে লাখ টাকা’ দেখে এই পেশার জন্য আগ্রহী হয়েছন।

সুতরাং অবশ্যই ফ্রিল্যান্সিং এর দিকে ঝুকে পড়ার আগে নিজেকে বুঝে নিন। হতে পারে আপনি এই পেশার জন্যেই পারফেক্ট অথবা আপনার জন্যে ভালো কিছু অপেক্ষা করছে অন্য কোন পেশায়।

Read More

Sunday, April 17, 2016

Miui 8 V6.7.14Beta Custom Rom For Symphony Xplorer W69Q

April 17, 2016 0

Miui 8 V6.7.14Beta

 
SCREENSHOTS

      







How to install:
  • Power off the phone and Press volume up + power button together to get into recovery mode.
  • Go to "Install zip from sd card".
  • Select "Miui 8 V6.7.14Beta For Xplorer W69Q By Invincible.zip"
  • Select "Yes install"
  • Now again flash "Fix Patch For Miui8 By Invincible.zip" as same way.
  • Go back
  • Rebot System Now !
  • Wait for about 5 minutes.
  • Done!



Read More

Post Top Ad